ভিভো মোবাইল দাম বাংলাদেশ ২০২২

ভিভো মোবাইল বাংলাদেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। গ্রাহকের কথা চিন্তা করে আজকের লেখার বিষয় বিভিন্ন মডেলের ভিভো মোবাইলের দাম। এই লেখাটি পড়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন বাংলাদেশের যে সকল ভিভো মোবাইল পাওয়া যায় সেগুলোর বর্তমান বাজার মূল্য। এছাড়াও বিভিন্ন মডেলের মোবাইল ফোনের বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে এখানে।
অসাধারণ ক্যামেরার জন্য ভিভোর ফোনগুলো বেশ সুপরিচিত। ভিভো মোবাইল বাংলাদেশ প্রাইস নিয়ে এজন্যই সবার মধ্যে আগ্রহ। যেখানে শাওমি ও রিয়েলমির মত কোম্পানিগুলো স্পেসিফেশনে কে কার চেয়ে সেরা হবে তা নিয়ে রীতিমত যুদ্ধ করছে, সেক্ষেত্রে মনে হচ্ছে অন্য কৌশল নিয়েছে ভিভো।
ভিভো মোবাইলের দাম ও কিন্তু সব গ্রাহকের জন্য ভাগ করা আছে। বাজেট কম হোক কিংবা অনেক বেশি, আপনার বাজেটে ভিভোর ফোন আপনি পাবেনই। ফোনের ক্ষেত্রে স্পেসিফিকেশনে ফোকাস না দিয়ে ব্যবহারের উপযোগিতা ও আকর্ষণীয়তার দিকে বেশি গুরুত্ব দেয় ভিভো। ভিভোর ফোনগুলো মূলত অনলাইন অফলাইন সব মার্কেটের ক্রেতাদের জন্যই তৈরি।
বাংলাদেশেও অফিসিয়ালি ভিভোর তরফ থেকে অনেকগুলো ফোন পাওয়া যাচ্ছে। বাজারের সবচেয়ে ভালো ফোন যেগুলো রয়েছে সেগুলোর সাথেও পাল্লা দেয় ভিভো। আবার কম দামের ফোন ক্রেতাদের জন্যও স্মার্টফোন বিক্রি করে ভিভো। চলুন জেনে নেওয়া যাক বাংলাদেশে ভিভো মোবাইল এর দাম সম্পর্কে।

ভিভো y20 বাংলাদেশ প্রাইস

ভিভোর ফোনের দাম বিবেচনায় কম দামের ফোন হলেও সুন্দর দেখতে একটি ফোন হলো ভিভো y20 ২০২২ ফোনটি। ফোনটির সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এর শোভা বাড়িয়ে দিয়েছে অনেকটা। তবে ভিতরে থাকা হেলিও পি৩৫ প্রসেসরের কারণে অনেকের অপছন্দের কারণ হতে পারে ফোনটি।

ভিভো y20 ২০২২ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৫১ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও পি৩৫
  • র‍্যামঃ ৪জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১৩মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প
ভিভো y20 ২০২২ এর দামঃ ১৩,৯৯০টাকা

ভিভো y21 প্রাইস ইন বাংলাদেশ

১৬হাজার টাকা দামের ফোন ভিভো ওয়াই২১। ফোনটিতে আহামরি কোনো ফিচার নেই। প্রসেসরও দুর্বল বলা চলে। এই বাজেটে অন্য ব্র‍্যান্ডের আরো ভালো ফোন বাজারে রয়েছে। তাই ফোন কেনার ক্ষেত্রে এই বাজেটে অন্যসব ফোন দেখতে পারেন।
ভিভো ওয়াই২১ এর স্পেসিফিকেশনঃ
ডিসপ্লেঃ ৬.৫১ইঞ্চি
প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও পি৩৫
র‍্যামঃ ৪জিবি
স্টোরেজঃ ৬৪জিবি
ব্যাক ক্যামেরাঃ ১৩মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল
ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প
ভিভো ওয়াই২১ এর দামঃ ১৫,৯৯০টাকা

ভিভো y90 বাংলাদেশ মার্কেট প্রাইস

নামে কিছুটা গোলমেলে মনে হলেও বেশ ভালো একটা প্যাকেজ অফার করছে ভিভো ওয়াই৫৩এস। ফোনটিতে থাকা হেলিও জি৮০ প্রসেসর কিছুটা দুর্বল হলেও ৮জিবি র‍্যাম এর কল্যাণে মাল্টিটাস্কিং ভালোভাবেই হ্যান্ডেল করে পারে এই ফোনটি। 
ভিভো ওয়াই৫৩এস এর স্পেসিফিকেশনঃ
ডিসপ্লেঃ ৬.৫৮ইঞ্চি
প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০
র‍্যামঃ ৮জিবি
স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
ব্যাক ক্যামেরাঃ ৬৪মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬মেগাপিক্সেল
ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প
ভিভো ওয়াই৫৩এস এর দামঃ ২০,৯৯০টাকা

10000 টাকার মধ্যে ভিভো মোবাইল

আমাদের দেশে ১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে মোবাইলগুলোর চাহিদা ব্যাপক। এই কথা মাথায় রেখে ১০ হাজার টাকার মধ্যে শাওমি, রিয়েলমি, ওয়ালটন বেশ কিছু ভালো ভালো ফোন অফার করছে। চলুন জেনে নেয়া যাক, ১০০০০ টাকা দামের মধ্যে সেরা ১০টি মোবাইল ফোন সম্পর্কে।
১০ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ফোন ২০২২
১০ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ফোনগুলো হলোঃ
শাওমি রেডমি ৯এ,
রিয়েলমি সি১১,
আইটেল ভিশন ২,
ভিভো ওয়াই১এস,
ওয়ালটন প্রিমো এইচএম৫,
সিম্ফোনি জেড৩০,
ওয়ালটন আরএক্স৭ মিনি,
সিম্ফোনি জেড৪০,
ওয়ালটন প্রিমো এইচ৯ প্রো,
ইনফিনিক্স হট ৯ প্লে।
উল্লেখিত ফোনসমুহ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচের সম্পূর্ণ লেখা পড়ুন।
১০. শাওমি রেডমি ৯এ – Redmi 9A
১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে শাওমির পক্ষ থেকে একমাত্র ভালো মোবাইল হচ্ছে শাওমি রেডমি ৯এ। ৬.৫৩ইঞ্চির এইচডি প্লাস নচযুক্ত ডিসপ্লের ফোন রেডমি ৯এ তে রয়েছে ২জিবি র‍্যাম ও ৩২জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
[★★]  মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার উপায় জানতে এখানে ক্লিক করুন 
মিডিয়াটেক এর হেলিও জি২৫ প্রসেসর দ্বারা চালিত রেডমি ৯এ ফোনটিতে রয়েছে ৫০০০মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি।
১৩মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা ও ৫মেগাপিক্সেল সেল্ফি ক্যামেরা থাকছে রেডমি ৯এ তে। ফোনটিতে ফিংগারপ্রিন্ট না থাকলেও, থাকছে ফেস আনলক সিস্টেম।
শাওমি রেডমি ৯এ এর দামঃ ৯,৯৯৯ টাকা
০৯. রিয়েলমি সি১১ – Realme C11
১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে থাকছে রিয়েলমির ফোন, রিয়েলমি সি১১। বেশ কম্পিটিটিভ প্রাইসিং নিয়ে রেডমি ৯এ এর অধিকাংশ ফিচারই প্রদান করছে ফোনটি। মিডিয়াটেক হেলিও জি৩৫, ৫০০০মিলিএম্প ব্যাটারি,  ১৩মেগাপিক্সেঅ ক্যামেরাসহ বেশিকিছু সাদৃশ্য রয়েছে রিয়েলমি সি১১ ও রেডমি ৯এ ফোন দুইটির মধ্যে। ফোনটির প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে এর ক্যামেরা। এই দামে রিয়েলমি সি১১ ফোনটি অফার করছে স্লো-মোশন ভিডিও রেকর্ডিং ফিচার। মোবাইলটির ক্যামেরাতে আরো রয়েছে নাইট মোড, যা এই দামে অনন্য।
রিয়েলমি সি১১ এর দামঃ ৮,৯৯০ টাকা
আরো জানুনঃ ১৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ফোন (২০২২)
০৮. আইটেল ভিশন ২ – Itel Vision 2
আমাদের এই ১০ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইলের তালিকায় আইটেল ভিশন ২ ফোনটি সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় দেখতে। ফোনটির ডিজাইন দেখে বুঝার উপায় নেই যে এটি একটি ১০ হাজার টাকার চেয়েও কম দামের ফোন।
আইটেল ভিশন ২ ফোনটিতে রয়েছে ৬.৬ইঞ্চির এইচডি প্লাস ডট-নচ ডিসপ্লে। ফোনটির সামনে রয়েছে ৮মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ব্যাক ক্যামেরা সেটাপ। ৪০০০মিলিএম্প এর ব্যাটারিযুক্ত ফোন আইটেল ভিশন ২।
ফোনটিতে রয়েছে ৩ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা দাম বিবেচনায় প্রশংসার দাবিদার। ফিংগারপ্রিন্ট ও ফেস আনলক সুবিধা রয়েছে আইটেল ভিশন ২ ফোনটিতে। সফটওয়্যার হিসেবে ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১০ এর গো এডিশন। 
আইটেল ভিশন ২ এর দামঃ ৯,৪৯০ টাকা
০৭. ভিভো ওয়াই১এস – Vivo Y1s
১০ হাজার টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন ৬.২২ ইঞ্চির ফোন, ভিভো ওয়াই১এস ফোনটি। ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজের ফোনটিতে রয়েছে ৪০৩০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি৷ মিডিয়াটেক এর হেলিও এ৩৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে ফোনটিতে। ১৩ মেগাপিক্সেলের ব্যাক ক্যামেরা ও ৫ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা রয়েছে ফোনটিতে।
ভিভো ওয়াই১এস এর দামঃ ৮,৯৯০ টাকা
০৬. ওয়ালটন প্রিমো এইচএম৫ – Walton Primo HM5
ওয়ালটন প্রিমো এইচএম৫ ফোনটির দুইটি ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যাবে ১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে। ৩জিবি র‍্যাম ও ৬৪জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের ওয়ালটন প্রিমো এইচএম৫ এর দাম ৮৫৯৯ টাকা। অন্যদিকে ৪জিবি র‍্যাম ভ্যারিয়েন্টের দাম ৯,৪৯৯ টাকা। ফোনটিতে রয়েছে ৪,৯০০মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি।
আরো জানুনঃ কম দামে ভালো ফোন ২০২২
মিডিয়াটেক এর হেলিও এ২০ প্রসেসর দ্বারা চালিত ফোনটিতে রয়েছে ১৩মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা ও ৮মেগাপিক্সেল সেল্ফি ক্যামেরা। ফোনটিতে ডিসপ্লে হিসেবে থাকছে ৬.১ইঞ্চির নচযুক্ত এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
ওয়ালটন প্রিমো এইচএম৫ এর দামঃ ৮,৫৯৯ টাকা / ৯,৪৯৯ টাকা
০৫. সিম্ফোনি জেড৩০ – Symphony Z30
১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে অসধারণ দেখতে একটি ফোন হলো সিম্ফোনি এর সিম্ফোনি জেড৩০ ডিভাইসটি। ৩জিবি র‍্যাম ও ৩২জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর মোবাইলটি কম দামে অসাধারণ ডিজাইন ও আউটলুক অফার করছে। থ্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটাপ এর সাথে ফোনটিতে রয়েছে ৮মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। সিম্ফোনি জেড৩০ তে থাকছে ৫০০০মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি। এছাড়াও ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর ও রয়েছে ফোনটিতে।
সিম্ফোনি জেড৩০ এর দামঃ  ৯,৭৯০ টাকা
০৪. ওয়ালটন আরএক্স৭ মিনি – Walton RX7 Mini
১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে যদি কেউ ভালো মানের গেমিং ফোন খুজে থাকে, তবে তার জন্য একমাত্র পছন্দ হবে ওয়ালটন আরএক্স৭ মিনি। এতো কম দামের মধ্যে ফোনটিতে থাকছে মিডিয়াটেক এর শক্তিশালী প্রসেসর, হেলিও পি৬০ চিপসেট। ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর এর পাশাপাশি ফোনটিতে রয়েছে ১৩মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা ও ৮মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ওয়ালটন আরএক্স৭ মিনি ফোনটতে আছে ৩জিবি র‍্যাম ও ৩২জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ওয়ালটন আরএক্স৭ মিনি ফোনটিতে ব্যাটারি থাকছে ৩০০০মিলিএম্প এর।
ওয়ালটন আরএক্স৭ মিনি এর দামঃ ৯,৪৯৯ টাকা
আরও জানুনঃ বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন ২০২২
০৩. সিম্ফোনি জেড৪০ – Symphony Z40
শুধুমাত্র দাম বেশি হলেই যে ফোনে আকর্ষণীয় ডিজাইন থাকে – এই ধারণাকে সম্পূর্ণ ভূল প্রমাণ করে আমাদের তালিকার এই স্থানে রয়েছে দেশীয় ব্র‍্যান্ড সিম্ফোনি এর সিম্ফোনি জেড৪০ ফোনটি। এই ফোনটিতে আকর্ষণীয় ডিজাইনের পাশাপাশি যুক্ত হয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের পাঞ্চ-হোল সেল্ফি ক্যামেরা যা ফোনটির লুকে অনন্য মাত্রা যোগ করেছে।
সিম্ফোনি জেড৪০ এর ব্যাকে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ। ফোনটি চলবে মিডিয়াটেক এর হেলিও জি৩৫ প্রসেসর দ্বারা। ৫০০০ মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি থাকছে ফোনটিতে। ১০ হাজার টাকার মধ্যেই পাওয়া যাবে ফোনটির ৩ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট। এছাড়া ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর ও রয়েছে ফোনটিতে।
সিম্ফোনি জেড৪০ এর দামঃ ৯,৯৯০ টাকা
০২. ওয়ালটন প্রিমো এইচ৯ প্রো – Walton Primo H9 Pro
১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে অসাধারণ স্পেসিফিকেশন অফার করছে ওয়ালটন প্রিমো এইচ৯ প্রো। তাই এটি আমাদের ১০,০০০ টাকা দামের মধ্যে সেরা ফোনের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান দখল করে নিয়েছে। ১০ হাজার টাকার মধ্যে ফোনটিতে ৪জিবি র‍্যাম ও ৬৪জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে। এছাড়াও এই ফোনটিতে থাকছে আলট্রা-ওয়াইড লেন্স। ১৩মেগাপিক্সেল থ্রিপল ক্যামেরা সেটাপের ফোনটিতে থাকছে ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর। থাকছে ৮মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ৪০০০মিলিএম্প ব্যাটারির ফোন, ওয়ালটন প্রিমো এইচ৯ প্রো ফোনটি চলবে মিডিয়াটেক এর হেলিও এ২০ চিপসেট দ্বারা। 
ওয়ালটন প্রিমো এইচ৯ প্রো এর দামঃ ৯,৪৯৯ টাকা
০১. ইনফিনিক্স হট ৯ প্লে – Infinix Hot 9 Play
আকর্ষণীয় ডিজাইন আর কম দামের মধ্যে ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি র‍্যাম অফার করার মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা মধ্যে সেরা ফোনের তালিকার শীর্ষস্থান দখল করে নিয়েছে ইনফিনিক্স হট ৯ প্লে ফোনটি। ৬.৮২ ইঞ্চির বিশাল এইচডি+ ডিসপ্লে থাকছে ফোনটিতে। ইনফিনিক্স হট ৯ প্লে ফোনটিতে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ব্যাক ক্যামেরা ও ৮ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ফোনটিতে রয়েছে ৬০০০ মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি। ফোনটি চলবে মিডিয়াটেক এর হেলিও এ২৫ প্রসেসর দ্বারা। এছাড়াও ফোনটির পেছনে রয়েছে ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর।
ইনফিনিক্স হট ৯ প্লে এর দামঃ ৯,৯৯০ টাকা
১০ হাজার টাকা দামের মধ্যে আপনার পছন্দের মোবাইল ফোন কোনটি? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

ভিভো y12 বাংলাদেশ প্রাইস

ভিভো y50

ভিভো y21 এর দাম কত

ভিভো y21
ভিভো y21 এর দাম কত  | Vivo y21 Price In Bangladesh  2022 – বন্ধুরা আজকে আমি আপনাদের সাথে যে ফোনে কথা বলব Vivo y21। এই মোবাইলটি বর্তমানে বাংলাদেশের খুবই জনপ্রিয়তা লাভ করছে। আপনাদের বাজেট যদি ১৪,৯৯০ বা এর বেশি থাকে তাহলে আপনারা এই ফোনটি দেখতে পারেন।  নিচে ফোনটির কিছু তথ্য আলোচনা করব। আমাদের গুগল নিউজ ফলো করুন ।
২০হাজার টাকার মধ্যে যদি ভিভো’র ফোন খুঁজেন, তবে ভিভো ওয়াই২১টি ফোনটি আপবার পছন্দ হতে পারে। ৫০মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরার পাশাপাশি এই ফোনটিতে রয়েছে শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০ প্রসেসর। ফোনটি পাওয়া যাবে ৪জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে।

ভিভো y21 এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৫১ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০
  • র‍্যামঃ ৪জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫০মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মেগাপিক্সেল

ভিভো y21 এর দামঃ ১৭,৯৯০টাকা

ভিভো y21 এর দাম ১৪,৯৯০ টাকা মাত্র অফিশিয়াল প্রাইস ।Vivo y21 ফোনের ৪ জিবি র‌্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ১৪,৯৯০ টাকা। 
Vivo y21 এই মোবাইল ফোনে যে ফিচার করে রয়েছে এবং বাংলাদেশে এই মোবাইল ফোনটি আপনি কত টাকার ভিতরে নিতে পারবেন এই বিস্তারিত তথ্য গুলো অবশ্যই আপনি জেনে নিতে পারবেন আজকের এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে।